মাত্রাতিরিক্ত লোডশেডিং এ অতিষ্ঠ নন্দীগ্রাম উপজেলাবাসী

প্রকাশিত হয়েছে
অসীম কুমার,নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি : গ্রামীণএকটা প্রবাদ রয়েছে,”আশ্বিন গা করে শিনশিন ” অর্থাৎ আশ্বিন মাস এলে গায়ে শীতের পরশ লাগে। জানান দেয় শীতের আগমনী।  কিন্তু বাস্তবিক আবহাওয়ার চিত্র উল্টো। বগুড়াতে আজকের তাপমাত্রা ২৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ভ্যাবসা গরমে জনজীবন অতিষ্ঠ।  এর সাথে যোগ হয়েছে মাত্রাতিরিক্ত লোডশেডিং।
কোন কারন ছাড়ায় নন্দীগ্রামে বিদ্যুৎ থাকেনা ঘন্টার পর ঘন্টা। সামান্য বাতাস কিংবা সামান্য বৃষ্টিতেই বিদ্যুৎ চলে যায় এখানে। ৫/৬ ঘন্টার আগে আর আসার নাম নেই। এই মাত্রাতিরিক্ত লোডশেডিং এ ব্যহত  হচ্ছে স্বাভাবিক কাজকর্ম।  নন্দীগ্রাম উপজেলা ৩ ফেস লাইন রয়েছে প্রায় তিনশটি, রয়েছে ডেইরি, পোল্টি খামার, বেকারি,  রাইচমিলসহ অনেক ছোট-মাঝারি কারখানা  লোডশেডিং এ থেমে গেছে তাদের উৎপাদন।
ডেইরি ফার্মের মালিকরা জানান, খামার ব্যবস্থাপনাতে বিদ্যুতের রয়েছে ব্যাপক ভূমিকা। গাড়ীগুলোকে গোছল করাতে ও ওদের বাতাস দেবার জন্য প্রয়োজন হয় বিদ্যুতের। অথচ ঘন্টার পর ঘন্টা বিদ্যুৎ নেই। গাভীগুলো গরমে অনেক কষ্ট পায়।
কথা হয় নন্দীগ্রাম উপজেলার দাসগ্রাম নিবাসী এক ইজিবাইক মালিকের সাথে। তাঁরা জানান, উপজেলাতে ইজিবাইক চালান অসংখ্য মানুষ।তাঁদের জীবিকার একমাত্র মাধ্যাম এটা। অথচ লোডশেডিং এর কারনে তাঁরা গাড়িতে  চার্জ দিতে পারছেনা।  ফলে গাড়িনিয়ে রাস্তায় যেতে পারছেন না তাঁরা। এতে করে সংসার চালাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে তাঁদের।
কথা হয় উপজেলা ই-সেন্টারে আসা আরেক গ্রাহক আবুল হোসেনের সঙ্গে। তিনি জানান, জরুরী কাজে সেবা কেন্দ্র এসেছিলেন তিনি। কিন্তু লোডশেডিং এর কারনে তাঁর কাজ বাঁধাগ্রস্ত হচ্ছে।
এদিকে লোডশেডিং এর কারন জানার জন্য বিদ্যুৎ অফিসে যোগাযোগ করলে কোন সদুত্তর দিতে পারেনি তাঁরা।

Calendder

October 2020
M T W T F S S
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031  

এখানে বিজ্ঞাপন দিন

এখানে বিজ্ঞাপন দিন

%d bloggers like this: