স্টাফ রিপোর্টার : দেশের সর্বোচ্চ সম্মানজনক স্বাধীনতা পুরস্কার পেয়েছেন মহান মুক্তিযুদ্ধের অকুতোভয় যোদ্ধা গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীক। মুক্তিযুদ্ধে অসামান্য অবদানের জন্য এই পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির বরাত দিয়ে তথ্য অধিদফতরের তথ্য বিবরণীতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। গোলাম দস্তগীর গাজী ছাড়াও ২০২০ সালে এই পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন আরও আট ব্যক্তিত্ব ও একটি প্রতিষ্ঠান।

এর আগে রাষ্ট্র গোলাম দস্তগীর গাজীকে মুক্তিযুদ্ধে বীরত্বপূর্ণ অবদানের জন্য বীর প্রতীকের খেতাব দেয়। আর এবার দেশের স্বাধীনতা অর্জনে এই বীরযোদ্ধার অবদানের প্রতি সম্মান জানালো জাতি। তিনি অর্জন করলেন স্বাধীনতা পুরস্কার। এছাড়াও ২০১৮ সালে সমাজসেবামূলক কার্যক্রমে অবদান রাখার জন্য আন্তর্জাতিক মাদার তেরেসা পদকে ভূষিত করা হয় তাকে।

বর্তমানে সরকারের বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন গোলাম দস্তগীর গাজী। এছাড়াও তিনি নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ থেকে টানা তৃতীয় দফায় নির্বাচিত সংসদ সদস্য।

গোলাম দস্তগীর গাজী ছাত্রজীবনে রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত হন। মুক্তিযুদ্ধ শুরু হওয়ার সময় বিএসসি পাস করে সবে মাত্র আইন কলেজে ভর্তি হয়েছিলেন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সে সময় দেশের স্বাধীনতা ঘোষণা করে সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধের ডাক দেওয়ার পরপরই আরো কয়েকজনের সঙ্গে ভারতে চলে যান গোলাম দস্তগীর গাজী। সেখানে প্রাথমিক প্রশিক্ষণ শেষে দেশে ফেরেন ও সম্মুখযুদ্ধে অংশ নিতে শুরু করেন। তিনি মুক্তিযুদ্ধের ২নং সেক্টরে বিভিন্ন সম্মুখ যুদ্ধে বীরত্বের সঙ্গে অংশ নেন।

তিনি ছিলেন মুক্তিযুদ্ধের সময় গঠিত ক্র্যাক প্লাটুনের অন্যতম সদস্য। রাজধানী ঢাকাকে শত্রুমুক্ত করতে কয়েকটি সফল অপারেশনে অংশ নেন গোলাম দস্তগীর গাজীসহ এই প্লাটুনের সদস্যরা। জীবন বাজি রেখে তিনি ও সহযোদ্ধারা রাজধানীর বুকে বিভিন্ন স্থাপনায় সশস্ত্র অপারেশন পরিচালনা করেন। যা সে সময়ের হানাদার পাকিস্তানি বাহিনীর ভিত কাঁপিয়ে দেয়।

 

মুক্তিযুদ্ধের পর নিজেকে ব্যবসা-বাণিজ্যে সম্পৃক্ত করেন। ধীরে ধীরে সফলতা পেতে শুরু করে গাজী গ্রুপ নামে তার প্রতিষ্ঠিত শিল্প গ্রুপ। দেশে ব্যবসা-বাণিজ্য খাতে অত্যন্ত সম্মানীয় এই গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীক দেশের শ্রেষ্ঠ করদাতাদের একজন।

আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে তার রয়েছে সক্রিয় ভূমিকা ও দায়িত্বশীল অবদান। তারই ধারাবাহিকতায় তিনি নিজ নির্বাচনী এলাকা নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ থেকে তিন দফা সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বঙ্গবন্ধুকন্যা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ টানা তৃতীয় দফা সরকার গঠন করলে তাকে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়।

অত্যন্ত সুনামের সঙ্গে এই দায়িত্ব তিনি পালন করে চলেছেন।

নিজস্ব প্রতিবেদক : আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের চিত্রাঙ্কণ ও রচনা প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে এ প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মমতাজ বেগম, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার রফিকুল ইসলাম, প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার জাহেদা আখতার প্রমূখ।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মমতাজ বেগম বলেন, চিত্রাঙ্কণ ও রচনা প্রতিযোগীতার মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের মেধার বিকাশ ঘটবে।

এতে করে শিক্ষার্থীরা ভাষা আন্দোলন ও দেশের স্বাধীনতার ইতিহাস সম্পর্কে জানতে পারবে।