শিরোনাম

রূপগঞ্জে ছাত্রলীগ নেতার দু’পায়ের রগ কর্তন করে কুপিয়ে হত্যা : আটক-৪

প্রকাশিত হয়েছে

রাসেল মাহমুদ ঃ এলাকার আধিপত্য বিস্তার ও নারী ঘটিত ঘটনাকে কেন্দ্র করে রূপগঞ্জ থানাধীন ভোলাব ইউনিয়ন ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদককে ধাওয়া করে প্রথমে দুই পায়ের রগ কর্তন করে ঐ ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও তার বাহিনীর লোকজন। পরে বেধড়ক পিটিয়ে ও কুপিয়ে মৃত্যু নিশ্চিতভেবে বীরদর্পে চলে যায়।

খবর পেয়ে পরিবারের লোকজন মূমুর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে তাকে হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যায়। ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার সন্দেহে পুলিশ ৪ জনকে আটক করেছে। বুধবার রাতে উপজেলার ভোলাব ইউনিয়নের টাওয়া (শিমুলিয়া) এলাকায় ঘটে এ ঘটনা। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। নিহত ছাত্রলীগ নেতা শিমুলিয়া এলাকার মুজিবুর রহমানের ছেলে।

নিহতের পরিবার, প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত এক বছর আগে ভোলাব ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য শরীফ মিয়ার সঙ্গে বালু ব্যবসাসহ এলাকার আধিপত্য নিয়ে ছাত্রলীগ নেতা সোহেল মিয়ার কথাকাটির ঘটনা ঘটে। ঐ সময় শরীফ হোসেন তার লোকজন নিয়ে সোহেল মিয়াকে ধাওয়া করে। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের এক সপ্তাহ আগে শরীফ ও তার লোকজন সোহেল মিয়ার মিয়ার বন্ধু মোজাম্মেল হক, আবু মিয়াকে কুপিয়ে জখম করে। এ ঘটনার প্রতিবাদ করে সোহেল মিয়া।

এর জেরে ধরেই বুধবার সন্ধ্যায় সোহেল মিয়াকে স্থানীয় সিরাজ মিয়া নামে এক লোক মোবাইল ফোনে ডাঙা বাজারে যেতে বলে। ডাঙা বাজার থেকে রাত সাড়ে ৯ টার দিকে সিরাজ মিয়াকে সঙ্গে নিয়ে সোহেল বাড়ি ফিরছিলো। বাড়ি ফেরার পথে পথিমধ্যে ফাঁকা জায়গায় শরীফ মেম্বার, লোকমান হোসেন, সাদ্দাত হোসেন ও শরীফ হোসেন গতিরোধ করে। জীবন বাঁচাতে সে দৌড়ে পালালে তারা তাকে ধাওয়া করে। একপর্যায়ে তাকে ধরে দুই পায়ের রগ কর্তন করে। পরে বেধড়ক পিটিয়ে ও কুপিয়ে মৃত্যু নিশ্চিতভেবে বীরদর্পে চলে যায়। এ ঘটনায় পুলিশ সিরাজ মিয়া নামে একজনকে আটক করেছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় কয়েকজন বলেন, শিমুলিয়া এলাকার মালয়েশিয়া প্রবাসী মিলন মিয়ার স্ত্রী সাবিনাকে ঐ ছাত্রলীগ নেতা যৌন হয়রানি করতো। এনিয়ে বেশ কয়েকবার বিচার-সালিশও হয়। একপর্যায়ে তার প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় সাবিনা আক্তারের কাছে ছাত্রলীগ নেতা চাঁদা দাবী করে। পরে ঐ নারী রূপগঞ্জ থানায় ছাত্রলীগ নেতা সোহেল মিয়ার বিরুদ্ধে রূপগঞ্জ থানায় চাঁদাবাজি মামলা দায়ের করেন (যার নং-১০০)। সাবিনার আক্তারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, গত ফেব্রুয়ারী মাসের ২২ তারিখে সোহেল মিয়া ও তার দলবল এসে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে। চাঁদা না দিলে সাড়ে ৪ বছরের মেয়ে ইলমা আক্তারকে গলা কেটে হত্যা করবে বলে হুমকি দেয়। জীবনের ভয়ে থানায় মামলা দায়ের করি। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, তার (সোহেল) সঙ্গে আমার কোন সম্পর্ক নেই।
ভোলাব ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন টিটু বলেন, খুবই দুঃখজনক। যারা ঘটিয়েছে তাদের বিচার হউক।
ভোলাব ফাঁড়ির ইনচার্জ শহীদুল আলম বলেন, সোহেল হত্যাকান্ডের ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে ৪ জনকে আটক করা হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।

এখানে মন্তব্য করুন

Calendder

নভেম্বর ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« অক্টোবর    
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  

এখানে বিজ্ঞাপন দিন

এখানে বিজ্ঞাপন দিন