ভোলার ১৪ গ্রামে রোববার ঈদুল আজহা

প্রকাশিত হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার :  সারা দেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা ১২ আগস্ট সোমবার ঈদুল আজহা উদযাপন করলেও উপকূলীয় দ্বীপজেলা ভোলার পাঁচ উপজেলার ১৪টি গ্রামের প্রায় তিন হাজার পরিবার একদিন আগে সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে আগামীকাল রোববার কোরবানির ঈদ উদযাপন করবেন।

শরিয়তপুর জেলার নুরিয়া উপজেলার দরবারে আউলিয়ার শুরেশ্বর দরবার পীরের মুরিদ ও ভোলা জেলার দায়িত্বে নিয়োজিত খলিফা মজনু মিয়া জানান, ভোলা জেলার পাঁচ উপজেলার ১৪টি গ্রামের প্রায় তিন হাজার পরিবার রোববার ঈদুল আজহা উদযাপন করবে। সকাল সাড়ে ৮টায় বোরহানউদ্দিন উপজেলার টবগী গ্রামে তার বাড়ির আঙ্গিনায় ঈদের প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হবে। তিনি নিজেই ওই জামাতে ইমামতি করবেন।

একইসঙ্গে ওই গ্রামের চৌকিদার বাড়ির জামে মসজিদে সকাল ৯টায় এবং পঞ্জায়েত বাড়ির জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৯টায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। সকাল ৯টা থেকে ১০টার মধ্যে জেলার বিভিন্ন জায়গায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

এ ছাড়া তজুমদ্দিন উপজেলার ছালাম মেম্বার বাড়ি, আব্দুল্লাহ মাঝি বাড়ি, লালমোহন উপজেলার লাঙ্গলখালীর পশ্চিম পাশে পাটওয়ারী বাড়ির জামে মসজিদ সংলগ্ন এলাকায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

মজনু মিয়া বলেন, ভোলা সদর উপজেলার ইলিশা ও রতনপুর গ্রাম, বোরহানউদ্দিন উপজেলার টবগী ও মুলাইপত্তন গ্রাম, তজুমদ্দিন উপজেলার শিবপুর, খাসেরহাট, চাঁদপুর ও চাঁচড়া গ্রাম, লালমোহন উপজেলার পৌর শহর, ফরাজগঞ্জ গ্রাম এবং চরফ্যাশন উপজেলার পৌর শহর, দুলারহাট, ঢালচর ও চর পাতিলা গ্রামের প্রায় তিন হাজার পরিবার প্রতি বছর একদিন আগে রোজা রাখেন। একদিন আগে ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আজহা পালন করে থাকেন।

তিনি আরো বলেন, শুরেশ্বর পীরের মুরিদ ছাড়াও চট্টগ্রামের সাতকানিয়া এবং ভান্ডারি শরিফ পীরের মুরিদ এসব পরিবারের সদস্যরা শতাধিক বছর ধরে সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে একদিন আগে রোজা, ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আজহা পালন করে আসছেন।

শুরেশ্বর পীরের অপর এক মুরিদ বোরহানউদ্দিন উপজেলার টবগী ইউনিয়নের সাবেক মেম্বার হারুন অর রশিদ বলেন, আমাদের মতে পৃথিবীর যে কোন স্থানে চাঁদ দেখা গেলেই রোজা এবং ঈদ পালন করা যায়। সে অনুযায়ী আমরা প্রতি বছর একদিন আগে রোজা, ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আজহা পালন করে আসছি।

একদিন আগে ভোলার প্রায় তিন হাজার পরিবার রোজা ও ঈদুল ফিতর পালনের ব্যাপারে ভোলার জেলা প্রশাসক মো. মাসুদ আলম ছিদ্দিক বলেন, দেশের অনেক জায়গায়ই বহু মানুষ একদিন আগে ঈদ পালন করে থাকেন। তবে এটা নিয়ে আইন-শৃঙ্খলার কোন অবনতি করা যাবে না। এক এক জন একেকভাবে ধর্মীয় অনুষ্ঠান পালন করে থাকেন। তাই এক্ষেত্রে আমরা সেটা বন্ধ করতে পারি না।

Calendder

December 2019
M T W T F S S
« Nov    
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031  

এখানে বিজ্ঞাপন দিন

এখানে বিজ্ঞাপন দিন