ব্যস্ত না.গঞ্জ কামার শিল্পীরা

প্রকাশিত হয়েছে

বিশেষ প্রতিবেদক : কুরবানীকে সামনে রেখে ব্যস্ত সময় পার করছেন নারায়ণগঞ্জের  কামার শিল্পীরা। দিনরাত ঘুমহীন চোখে তৈরি করছে ছুরি, চাপাতি, দা, বটি, ছোট চাকু আর সান দিয়ে পুরাতনকে দিচ্ছে নতুন রুপ।

শুধু  জেলা শহরে নয় উপজেলার কামাররাও চাঙ্গা সময় পার করছে। কথা বলার সময় নেই তাদের। দিন-রাত সমান ভাবে চলছে তাদের কাজ। টুং,টাং শব্দের ঝড় তুলে নিপুণ কারিশমা তৈরি করছে নানা সরঞ্জাম।
 ঈদুল আযহা যতই ঘনিয়ে ততই ব্যস্ততা পারছে কামার পল্লীতে।

ক্রেতারা তাদের পছন্দের জিনিস কেনার জন্য ভীড় করছেন দোকানগুলোর সামনে। তবে চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় দামও তুলনামূলকভাবে বেড়েছে। কিন্তু সেদিকে খেয়াল নেই ক্রেতাদের।
শহরের বউ বাজারের কামারপল্লী ঘুরে দেখা যায়, সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলে বিরামহীন ভাবে কাজ। দম ফুরাবার ফুসরৎ নেই তাদের। মঙ্গলবার থেকে নতুন কোন দা, ছুরি অর্ডার নিচ্ছেনা তারা।

এ বিষয়ে নেপাল  নামের এক কামার বলেন, কুরবানীর সময় কামার পাড়াতে কাজের চাপ বেশী থাকে। পশু জবাই ও চামড়া ছাড়ানো এবং মাংস ও হাড্ডি কাটার জন্য দা,ছুরি,চাপাতি,ছোট বড় চাকু,ছুরি চাহিদা থাকে।

আরেকজন বিপ্লব  ধর বলেন,সারা বছর কাজ নেই বললে চলে। ঈদকে সামনে রেখে তৈরি জিনিসগুলোর কদর খুব বেশি। প্রতিটি দা বিক্রি হচ্ছে ৫০০ থেকে ৫৫০ টাকা,ছোট ছুরি ১০০ থেকে ৫০০ টাকা,বটি ৩০০ থেকে ১২০০ টাকা,চাপাতি ৩০০ থেকে ১৫০০ টাকা দামে বিক্রি করা হচ্ছে। শুধু লোহার তৈরি জিনিস নয় রয়েছে স্প্রিং ও স্টিলের জিনিস চাহিদা খুব বেশি রয়েছে বলে তিনি জানান।
এদিকে আবুল নামের এক ক্রেতা বলেন,ছুরি কেনার জন্য এসেছি, বড় ছুরি কিনেছি ৫০০ টাকা দিয়ে। দুটি ছোট ছুরি কিনেছে ৩০০ টাকা দিয়ে। তবে আগের তুলনায় দাম বেশি রাখছে কামারেরা।

Calendder

December 2019
M T W T F S S
« Nov    
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031  

এখানে বিজ্ঞাপন দিন

এখানে বিজ্ঞাপন দিন